পাবলো নেরুদার কবিতা

52d83337b64f0-11অনুবাদ: মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান
আর সেই বয়সে…কবিতা এসেছিল
আমার খোঁজে। আমি জানি না, আমি জানি না কোথা থেকে
তা এসেছিল, শীত না নদী থেকে।
আমি জানি না কেমন করে বা কখন,
না, তারা কণ্ঠস্বর নয়, তারা নয়
শব্দ বা নৈঃশব্দ্য।
কিন্তু আমাকে ডাক দেওয়া হয়েছিল এক রাস্তা থেকে
রাত্রির শাখাপ্রশাখা থেকে,
আচমকা অন্যদের মাঝখানে থেকে,
প্রচণ্ড আগুনের মাঝে,
বা একাই ফিরছিলাম,
আমি ছিলাম মুখাবয়বহীন,
আর তখন তা আমাকে স্পর্শ করল।

আমি কী আমি জানতাম না, আমার
মুখে কোনো নাম আসছিল না,
আমার চোখ ছিল অন্ধ,
আর হঠাৎ করে আমার আত্মায় কী একটা শুরু হলো,
জ্বর বা বিস্মৃত পাখিদের ডানা,
আর আমি আমার পথ করে নিলাম,—
অর্থোদ্ধার করে
সেই আগুন,
আর লিখে ফেললাম প্রথম অস্পষ্ট পঙিক্তটি
অস্পষ্ট, সারশূন্য বিশুদ্ধ
অর্থহীনতা,
বিশুদ্ধ প্রজ্ঞা
এমন একজনের যে কিছুই জানে না,
আর হঠাৎ আমি দেখলাম
আকাশ বিমুক্ত
এবং উন্মুক্ত,
গ্রহদের
স্পন্দিত উদ্যান,
ছিদ্রিত ছায়া,
ছিন্নভিন্ন
তীর, আগুন আর ফুলে,
ঘূর্ণায়মান রাত্রি, বিশ্ব।

আর আমি ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র এক সত্তা,
মত্ত মহা তারকায়িত শূন্যতায়,
সাদৃশ্য, প্রতিকৃতি
রহস্যের
নিজকে মনে হলো এক বিশুদ্ধ অংশ
অতলের,
আমি তারকাদের সঙ্গে চক্রাকারে ঘুরঘুর ঘুরলাম,
আমার হূদয় মুক্ত হয়ে ভেসে গেল বাতাসে।

মন্তব্য

মন্তব্য সমুহ

সম্পর্কিত পোষ্ট =>  আমার কাছ থেকে দূরে থেকো না
পাবলো নেরুদা- এর আরো পোষ্ট দেখুন →
রেটিং করুনঃ
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...