ছিল সে-ও

ছিল সে-ও ধুলোর নিঃসঙ্গ পথে, ছিল কোলাহলে
সমর্পিত চিরদিন। দিঘি তাকে চেয়েছিল বলে
সোনার শরীর নিয়ে ব্যর্থ হল নারী।
ডুবিয়ে পায়ের পাতা, সহচরী শাড়ি
ডুবিয়ে নিঃসঙ্গ জলে নামল যখন-
ঝাপসা চোখ, মেঘ হল মন।

অত শান্ত জলের কুহকে তার সমাজ সংসার হবে লীন
কেই তাকে বলেনি সেদিন।

মাচায় অর্পিতা লতা জানে যার প্রীত পরিচয়,
ভুলব কি তার নাম? দূরে কাছে একই হাওয়া বয়?
প্রসারিত ধুলোয় নিঃসঙ্গ পথ-রেখা;
কাকে দেখে ঘুরে ঘুরে উঠানে কুকুর কাঁদে একা?

খাঁচার পাহাড়ি পাখি সে-ও যেতে চায়
অজানা কোথায়-
গাছে-গাছে মূর্ত ভাষা, পৃথিবীর সমস্ত আকাশে
বেলা প’ড়ে আসে।

মন্তব্য

মন্তব্য সমুহ

সম্পর্কিত পোষ্ট =>  একটি বহুরৈখিক টেক্সট
শামসুর রাহমান- এর আরো পোষ্ট দেখুন →
রেটিং করুনঃ
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...