মাতলামো

উত্তেজনা ছড়ায়েন না
কেননা এই মৃত বৎসা দেশে আগুনের ফুলকি গুলি শ্মশানের বাহবা বাড়ায়
দূর থেকে শুনা যায় শৃগালের হাসি আর হায়েনার গর্জন,
যত রাত দীর্ঘ হয় ততই বাঘের চোখ ভৌতিক আলোর মতন
পাড়ায় পাড়ায় ছড়ায় আতংক
ক্রমে উলঙ্গের দীর্ঘশ্বাস হাভাত হাভাত শব্দ ক্ষীন হয়ে বাতাসে মেলায় ।
উত্তেজনা ছড়ায়েন না
বরং এই শ্মশানের শান্তি থেকে পরিত্রান
কি আছে কোথায় খুঁজি উন্মাদের মত ,
ভয়ংকর দৃশ্যগুলি দুহাতে সরাতে চাই
কিন্তু আমার দুহাত ভর্তি ভিক্ষার বিশ্বাদ অন্ন
আমি কাঁকে পথ দেখাব ।
কোন পথ ?
স্বাধীনতা ,হায় স্বাধীনতা
বুকে যত তোলপাড় রক্ত ততই ভেতরে রক্ত জল হয়ে যায় ।
মৃত্যুর ধোঁয়ার ঝাপসা চোখে সব অন্ধকার
শুধু স্বর্গ মনে হয় গেলাস গেলাস মদ
মানুষ নামের জন্তু যেখানে স্বাধীন
গায়ে মাতলামোর গান ,কে কার তোয়াক্কা রাখে
আমি সেই মাতালের কোমড় জড়িয়ে
হৈ হৈ জীবনের স্বপ্ন দেখি ,আর কিছু বেসামাল কথা বলি
এই নরকে ঈশ্বরের বাচ্চা আর নেড়ি কুত্তা সমান সমান
কা কাঁকে চোখ রাঙায় ।
উত্তেজনা ছড়ায়েন না
শুধু মাথার ভেতরে মদ গাঢ় হলে
যে কোন উলঙ্গ মানুষের কাঁধে মাথা রেখে
গভীর ঘুমুতে চাই ।
ঘুমের মধ্যে আমি স্বপ্ন দেখি , বাঘ শিকারের স্বপ্ন
তখন আমার হাতে অব্যর্থ নিশানা ।
আবার কখনো ভয়ংকর দুঃস্বপ্নে চিৎকার করি
এই সংবিধান ছোঁটা ,স্বাধীনতা কার স্বাধীনতা ।
সমস্ত শরীর মদে ভিজে গেলে
টালমাতাল আকাশের দিকে আমি উল্টো করে ছুড়ে দেই
একডজন কাঁচের গ্লাস ।

      Matlamo - Kamrul Hasan Monju

মন্তব্য

মন্তব্য সমুহ

সম্পর্কিত পোষ্ট =>  তোমার কাছে
বীরেন্দ্র চট্টোপাধ্যায়- এর আরো পোষ্ট দেখুন →
রেটিং করুনঃ
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...