তোমার পায়ের কাছে

তোমার পায়ের কাছে স্বপ্ন ছিল
জলস্রোত ছিল,নক্ষত্র নিবিড় মৌন ছিল।
আর গতি ছিল গতিহীনতার দিকে
সময় মঞ্জরী।
তোমায়ের পায়ের নীচে থেকে যেন সৃষ্টির সূচনা
আমি হাত রেখেছিলাম সেখানে
শান্তির নিটোল বৃন্ত মুখ রেখে আমি
নক্ষত্রপুঞ্জের সুগন্ধি নিলাম,সখি।
মন্দিরে বিগ্রহ যদি কথা বলে, যদি দৈববাণী হয়
অথবা সঙ্গীত যদি রক্ত মাংসের দেহ পায়
আমি বিস্মিত হবো না ।
জানি না তোমার চেয়ে  বড় আর কি রহস্য আছে ?
তোমার পায়ের নীচে আমাকে অরণ্য হতে হবে
সেখানে আমার মুক্তি,স্বভাবের স্বাভিকতায়।
আমি তোছিলাম পাথরে ছড়ানো বীজ,আলো হাওয়া
যাকে দীর্ণ করে পল্লবের স্থির চরিত্র দেয়নি
তাই মনে হতো দ্রুব হল চোরাবালি,আর্তনাদ
তবু দেখ আমার চোখের মণি জল স্রোতে ফুল
আর দুই হাত তুলে নিল আরতির দীপাধার
তোমার পায়ের নীচে বৃক্ষ হলে
জীবনের নাম শস্য,সমারোহ ।

মন্তব্য

মন্তব্য সমুহ

সম্পর্কিত পোষ্ট =>  নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ
রাম বসু- এর আরো পোষ্ট দেখুন →
রেটিং করুনঃ
1 Star2 Stars3 Stars4 Stars5 Stars (No Ratings Yet)
Loading...