অল্পকথা ডট কম

স্বর্নালী দিনের স্পর্শ

সাথে থাকুন

Download

গান শুনতে এখানে ক্লিক »করুন !

Member Login

Lost your password?

Not a member yet? Sign Up!

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

লেখকঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

লেখক সম্পর্কেঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (৭ই মে, ১৮৬১ - ৭ই আগস্ট, ১৯৪১) (২৫ বৈশাখ, ১২৬৮ - ২২ শ্রাবণ, ১৩৪৮ বঙ্গাব্দ) ছিলেন অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, সংগীতস্রষ্টা, নাট্যকার, চিত্রকর, ছোটগল্পকার, প্রাবন্ধিক, অভিনেতা, কণ্ঠশিল্পী ও দার্শনিক।তাঁকে বাংলা ভাষার সর্বশ্রেষ্ঠ সাহিত্যিক মনে করা হয়। রবীন্দ্রনাথকে গুরুদেব, কবিগুরু ও বিশ্বকবি অভিধায় ভূষিত করা হয়। রবীন্দ্রনাথের ৫২টি কাব্যগ্রন্থ, ৩৮টি নাটক,১৩টি উপন্যাস ও ৩৬টি প্রবন্ধ ও অন্যান্য গদ্যসংকলন তাঁর জীবদ্দশায় বা মৃত্যুর অব্যবহিত পরে প্রকাশিত হয়। তাঁর সর্বমোট ৯৫টি ছোটগল্প ও ১৯১৫টি গানযথাক্রমে গল্পগুচ্ছ ও গীতবিতান সংকলনের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের যাবতীয় প্রকাশিত ও গ্রন্থাকারে অপ্রকাশিত রচনা ৩২ খণ্ডে রবীন্দ্র রচনাবলী নামে প্রকাশিত হয়েছে।রবীন্দ্রনাথের যাবতীয় পত্রসাহিত্য উনিশ খণ্ডে চিঠিপত্র ও চারটি পৃথক গ্রন্থে প্রকাশিত। এছাড়া তিনি প্রায় দুই হাজার ছবি এঁকেছিলেন। রবীন্দ্রনাথের রচনা বিশ্বের বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে। ১৯১৩ সালে গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদের জন্য তিনি সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর কলকাতার এক ধনাঢ্য ও সংস্কৃতিবান ব্রাহ্ম পিরালী ব্রাহ্মণ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। বাল্যকালে প্রথাগত বিদ্যালয়-শিক্ষা তিনি গ্রহণ করেননি; গৃহশিক্ষক রেখে বাড়িতেই তাঁর শিক্ষার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। আট বছর বয়সে তিনি কবিতা লেখা শুরু করেন। ১৮৭৪ সালে তত্ত্ববোধিনী পত্রিকা-এ তাঁর "অভিলাষ" কবিতাটি প্রকাশিত হয়। এটিই ছিল তাঁর প্রথম প্রকাশিত রচনা। ১৮৭৮ সালে মাত্র সতেরো বছর বয়সে রবীন্দ্রনাথ প্রথমবার ইংল্যান্ডে যান। ১৮৮৩ সালে মৃণালিনী দেবীর সঙ্গে তাঁর বিবাহ হয়। ১৮৯০ সাল থেকে রবীন্দ্রনাথ পূর্ববঙ্গের শিলাইদহের জমিদারি এস্টেটে বসবাস শুরু করেন। ১৯০১ সালে তিনি পশ্চিমবঙ্গের শান্তিনিকেতনে ব্রহ্মচর্যাশ্রম প্রতিষ্ঠা করেন এবং সেখানেই পাকাপাকিভাবে বসবাস শুরু করেন। ১৯০২ সালে তাঁর পত্নীবিয়োগ হয়। ১৯০৫ সালে তিনি বঙ্গভঙ্গ-বিরোধী আন্দোলনে জড়িয়ে পড়েন।১৯১৫ সালে ব্রিটিশ সরকার তাঁকে নাইট উপাধিতে ভূষিত করেন। কিন্তু ১৯১৯ সালে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে তিনি সেই উপাধি ত্যাগ করেন। ১৯২১ সালে গ্রামোন্নয়নের জন্য তিনি শ্রীনিকেতন নামে একটি সংস্থা প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯২৩ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বভারতী প্রতিষ্ঠিত হয়। দীর্ঘজীবনে তিনি বহুবার বিদেশ ভ্রমণ করেন এবং সমগ্র বিশ্বে বিশ্বভ্রাতৃত্বের বাণী প্রচার করেন। ১৯৪১ সালে দীর্ঘ রোগভোগের পর কলকাতার পৈত্রিক বাসভবনেই তাঁর মৃত্যু হয়।

লেখকের ইউআরএলঃ
অবস্থান:
প্রোফাইলঃ ৮০ views হয়েছে ।

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, মন্তব্য সংখ্যাঃ ০

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, পোষ্ট সংখ্যাঃ ৩০০

যুক্ত হয়েছেনঃ মে ১৪, ২০১২, সোমবার,

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর 'র পছন্দের পোষ্টঃ
  • "এখনো কোন পছন্দের পোষ্ট যুক্ত করেন নাই ।"

  • দে তোরা আমায় নূতন ক’রে দে নূতন আভরণে

    সংযুক্তির তারিখঃ ২৪ মে ২০১৭ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    দে তোরা আমায় নূতন ক’রে দে নূতন আভরণে॥ হেমন্তের অভিসম্পাতে রিক্ত অকিঞ্চন কাননভূমি, বসন্তে হোক দৈন্যবিমোচন নব লাবণ্যধনে। শূন্য শাখা লজ্জা ভুলে যাক পল্লব-আবরণে॥ বাজুক প্রেমের মায়ামন্ত্রে পুলকিত প্রাণের বীণাযন্ত্রে চিরসুন্দরের অভিবন্দনা। আনন্দচঞ্চল নৃত্য অঙ্গে অঙ্গে বহে যাক হিল্লোলে হিল্লোলে, যৌবন পাক সম্মান বাঞ্ছিতসম্মিলনে॥ dey tora amay nuton kore (rabindra sangeet) by jayati chakroborty বিস্তারিত

    মন্তব্য (নেই )

    মনের বাগান-বাড়ি

    সংযুক্তির তারিখঃ ২০ মে ২০১৭ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    ভালবাসা অর্থে আত্মসমর্পণ নহে। ভালবাসা অর্থে, নিজের যাহা কিছু ভাল তাহাই সমর্পণ করা। হৃদয়ে প্রতিমা প্রতিষ্ঠা করা নহে; হৃদয়ের যেখানে দেবত্রভূমি, যেখানে মন্দির, সেইখানে প্রতিমা প্রতিষ্ঠা করা। যাহাকে তুমি ভালবাস তাহাকে ফুল দাও, কাঁটা দিও না; তোমার হৃদয়সরোবরের পদ্ম দাও, পঙ্ক দিও না। হাসির হীরা দাও, অশ্রুর মুক্তা দাও; হাসির বিদ্যুৎ দিও না, অশ্রুর বাদল […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    মনের বাগান-বাড়ি তে মন্তব্য বন্ধ

    সংসার যবে মন কেড়ে লয়

    সংযুক্তির তারিখঃ ২৫ মার্চ ২০১৭ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    সংসার যবে মন কেড়ে লয়, জাগে না যখন প্রাণ, তখনো, হে নাথ, প্রণমি তোমায় গাহি ব’সে তব গান ।। অন্তরযামী, ক্ষমো সে আমার শূন্য মনের বৃথা উপহার- পুষ্পবিহীন পূজা-আয়োজন, ভক্তিবিহীন তান ।। ডাকি তব নাম শুষ্ক কন্ঠে, আশা করি প্রাণপণে- নিবিড় প্রেমের সরস বরষা যদি নেমে আসে মনে । সহসা একদা আপনা হইতে ভরি দিবে […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    সংসার যবে মন কেড়ে লয় তে মন্তব্য বন্ধ

    যদি এ আমার হৃদয়দুয়ার

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    যদি এ আমার হৃদয়দুয়ার বন্ধ রহে গো কভু দ্বার ভেঙে তুমি এসো মোর প্রাণে, ফিরিয়া যেয়ো না প্রভু ॥ যদি কোনো দিন এ বীণার তারে তব প্রিয়নাম নাহি ঝঙ্কারে দয়া ক’রে তবু রহিয়ো দাঁড়ায়ে, ফিরিয়া যেয়ো না প্রভু ॥ যদি কোনো দিন তোমার আহ্বানে সুপ্তি আমার চেতনা না মানে বজ্রবেদনে জাগায়ো আমারে, ফিরিয়া যেয়ো না […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    যদি এ আমার হৃদয়দুয়ার তে মন্তব্য বন্ধ

    শ্রাবণের গগনের গায়

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    শ্রাবণের গগনের গায় বিদ্যুৎ চমকিয়া যায়। ক্ষণে ক্ষণে শর্বরী শিহরিয়া উঠে, হায়॥ তেমনি তোমার বাণী মর্মতলে যায় হানি সঙ্গোপনে, ধৈরজ যায় যে টুটে, হায়॥ যেমন বরষাধারায় অরণ্য আপনা হারায় বারে বারে ঘন রস-আবরণে তেমনি তোমার স্মৃতি ঢেকে ফেলে মোর গীতি নিবিড় ধারে আনন্দ-বরিষণে, হায়॥ Shraboner Gogoner Gay বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    শ্রাবণের গগনের গায় তে মন্তব্য বন্ধ

    কেন সারাদিন ধীরে ধীরে

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    কেন সারাদিন ধীরে ধীরে বালু নিয়ে শুধু খেল তীরে! চলে গেল বেলা, রেখে মিছে খেলা ঝাঁপ দিয়ে পড়ো কালো নীরে। অকূল ছানিয়ে যা পাও তা নিয়ে হেসে কেঁদে চলো ঘরে ফিরে। নাহি জানি মনে কী বাসিয়া পথে বসে আছে কে আসিয়া। কী কুসুমবাসে ফাগুনবাতাসে হৃদয় দিতেছে উদাসিয়া। চল্‌ ওরে এই খেপা বাতাসেই সাথে নিয়ে সেই […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    কেন সারাদিন ধীরে ধীরে তে মন্তব্য বন্ধ

    তুমি মোর পাও নাই পরিচয়

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    তুমি মোর পাও নাই পরিচয় । তুমি যারে জান সে যে কেহ নয়, কেহ নয় ॥ মালা দাও তারি গলে, শুকায় তা পলে পলে, আলো তার ভয়ে ভয়ে রয়— বায়ুপরশন নাহি সয় ॥ এসো এসো দুঃখ, জ্বালো শিখা, দাও ভালে অগ্নিময়ী টিকা । মরণ আসুক চুপে পরমপ্রকাশরূপে, সব আবরণ হোক লয়— ঘুচুক সকল পরাজয় ॥ […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    তুমি মোর পাও নাই পরিচয় তে মন্তব্য বন্ধ

    তুই ফেলে এসেছিস কারে

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    তুই ফেলে এসেছিস কারে, মন, মন রে আমার। তাই জনম গেল, শান্তি পেলি না রে মন, মন রে আমার।। যে পথ দিয়ে চলে এলি সে পথ এখন ভুলে গেলি– কেমন করে ফিরবি তাহার দ্বারে মন, মন রে আমার।। নদীর জলে থাকি রে কান পেতে, কাঁপে যে প্রাণ পাতার মর্মরেতে। মনে হয় যে পাব খুঁজি ফুলের […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    তুই ফেলে এসেছিস কারে তে মন্তব্য বন্ধ

    ডাকব না ডাকব না

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    ডাকব না ডাকব না এমন করে বাইরে থেকে ডাকব না পারি যদি – অন্তরে তার ডাক পাঠাব আনব ডেকে না না না ডাকব না ডাকব না এমন করে বাইরে থেকে দেবার ব্যথা বাজে আমার বুকের তলে নেবার মানুষ জানিনে তো কোথায় চলে ।। এ দেওয়া নেওয়ার মিলন আমার ঘটাবে কে না না না ডাকব না […] বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    ডাকব না ডাকব না তে মন্তব্য বন্ধ

    বর্ষণ মন্দ্রিত অন্ধকারে এসেছি তোমারি এ দ্বারে

    সংযুক্তির তারিখঃ ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৬ লিখেছেনঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

    বর্ষণ মন্দ্রিত অন্ধকারে এসেছি তোমারি এ দ্বারে পথিকেরে লহো ডাকি তব মন্দিরের এক ধারে।। বনপথ হতে, সুন্দরী, এনেছি মল্লিকামঞ্জলী তুমি লবে নিজ বেণীবন্ধে মনে রেখেছি এ দুরাশারে।। কোনো কথা নাহি ব’লে ধীরে ধীরে ফিরে যাব চলে। ঝিল্লিঝঙ্কৃত নিশীথে পথে যেতে বাঁশরিতে শেষ গান পাঠাব তোমা-পানে শেষ উপহারে।। Borsonmondrito ondhokare wshechi tomai e dare বিস্তারিত

    ট্যাগসমুহঃ

    বর্ষণ মন্দ্রিত অন্ধকারে এসেছি তোমারি এ দ্বারে তে মন্তব্য বন্ধ

    ই-মেইলের মাধ্যমে নতুন পোষ্ট-এর জন্য

    আপনার ই-মেইল লিখুন

    ,

    জুন ২১, ২০১৭,বুধবার

    Custom Search
    আপনার বিজ্ঞাপন !

    বাংলা সংবাদপত্র