অল্পকথা ডট কম

স্বর্নালী দিনের স্পর্শ

সাথে থাকুন

Download

গান শুনতে এখানে ক্লিক »করুন !

Member Login

Lost your password?

Not a member yet? Sign Up!



এলেবেলে -২২

লিখেছেনঃ

Share on Facebook Share on Facebook

মন খারাপ করো না, এই আমার কথাই ধরো পড়ালেখা তেমন হয়নি। তাই বলে কি আমার ক্ষতি হয়েছে ? আমি নিজেও নিজেকে ছোট মনে করি না। আমি কারো সমস্যা হয়ে নেই, থাকবো না।

তোমার কাছে টাকা থাকলেই কেও তোমাকে নিয়ে প্রশ্ন করবে না। এমনকি তুমি কি ভাবে এত টাকা ওয়ালা হলে তা নিয়েও কেও প্রশ্ন করবে না। এই হচ্ছে আমাদের দেশের সমাজ। আমাদের দেশের অনেক বড় বড় পাশ দেওয়া বউ গুলো স্বামীর উপার্জন নিয়ে গর্ব করে দিনাতিপাত করতে দেখেছি। আবার কোন কোন মহিলাকে প্রতিটি ক্ষণ নিজের শ্রম দিয়ে উপার্জন করে জীবন পার করতে দেখছি। তুমি কাঁকে সন্মান করবে !!

আমাদের সমাজটাই এমন।
এ সমাজে আমার নিজের চেয়ে অন্যরা আমার সম্পর্কে বেশী জানে, আমি/তুমি এই সমাজকে অস্বীকার করতে পারবো বলো। তুমি যাই বলো না কেন আমি পারি, আমাকে পারতে হবে।

তোমার যদি কোন দিন সময় হয় কাহলিল জিবরান এর “দ্যা প্রফেট” কবিতাটা পড়ে দেখো।

। সংযুক্তির তারিখঃ মার্চ ৩০, ২০১৭,বিভাগঃ অন্যান্য ,ট্যাগঃ  , ৯ টি মন্তব্য , ২৯ views, রেটিং করুনঃ FavoriteLoadingপছন্দের পোষ্ট হিসাবে নিন । । মিতা- এর আরো পোষ্ট দেখুন →
Custom Search

মন্তব্য (৯), এই পোষ্টের মন্তব্য সমুহ

  1. খেয়ালী মন লিখেছেনঃ

    এ সমাজে আমার নিজের চেয়ে অন্যরা আমার সম্পর্কে বেশী জানে, আমি/তুমি এই সমাজকে অস্বীকার করতে পারবো বলো। তুমি যাই বলো না কেন আমি পারি, আমাকে পারতে হবে।” https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_Yes.gif.gif
    ভালো লাগলো, আপনার এই ধারাবাহিক টা ব্লগে আসলেই খুজে বের করে পরি, ভালো লাগে।

  2. মুরুব্বী লিখেছেনঃ

    আমাদের সমাজটাই এমন। এ সমাজে আমার নিজের চেয়ে অন্যরা আমার সম্পর্কে বেশী জানে, আমি/তুমি এই সমাজকে অস্বীকার করতে পারি না। __ জীবন কথা। https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_smile.gif

  3. মোঃ খালিদ উমর লিখেছেনঃ

    ঠিক জীবনের কথাই বলেছেন ভাই। আমাদের দেশেই এমন করে আমার চেয়ে আমার সম্পর্কে অন্য মানুষের বেশি জানা সম্ভব। অন্য দেশের বিশেষ করে উন্নত দেশের মানুষদের অনেক পরিশ্রম করে জীবন যাপন করতে হলে বলে অন্যের সম্পর্কে এত কিছু জানার সুযোগ নেই।

  4. থার্ড আই লিখেছেনঃ

    জানতে হলে পড়ুন দ্য প্রফেট..

    ভালোবাসা বিষয়ে

    ………..
    ভালোবাসার ইশারা পেলে তাকে অনুসরণ কর,
    তার পথ যদিও দুর্গম ও বন্ধুর বড়,
    তার পক্ষপুট প্রসারিত হ’লে তাতে আত্মসমর্পিত হও, তোমরা সমর্পণ কর নিজেদেরকে
    তার পক্ষপুটের গুপ্ত গুপ্তি ক্ষতবিক্ষত করতেও পারে বা তোমাদেরকে
    তার ব্যক্ত অভিব্যক্তিতে তোমরাি আস্থান্বিত হও অবলীলায়
    তার কন্ঠস্বরে স্বপ্ন ভঙ্গ হতেও পারে বা তোমাদের যেমন উত্তরীয় বাত্যাবহে ঝঞ্ঝাবিধ্বস্ত হয় উদ্যানবাগিচা, হায়!
    ভালোবাসা তোমাদেরকে শিরঊষ্ণীষে অভিষেক করবে তোমাদেরকে ক্রশে বিদ্ধ করবে
    ভালোবাসা তোমাদেরকে সম্প্রসারিত করবে আবার সঙ্কুচিতও করবে
    ভালোবাসা তোমাদের সমুচ্চতায় উঠে তোমাদের রৌদ্রে শিহরিত পেলব শাখাপ্রশাখাকে আলুলায়িত করবে
    ভালোবাসা আবার তোমাদের মৃত্তিকামূলে নেমে এসে তাকে মার্তণ্ডে জেরবার করবে।
    ভালোবাসা তোমাদের শস্যের আটির মত নিজের হৃদয়বক্ষে ধারণ করবে
    তোমাদেরকে মাড়াই করে খোসামুক্ত নিরাবরণ করবে, ঝাড়াই করে তুষ থেকে আলাদা করবে
    তোমাদেরকে পেষাই করে শুভ্রতামণ্ডিত করবে
    তোমাদেরকে দলাইমলাই করবে আর তোমরা কমনীয় নমনীয় হ’য়ে উঠবে
    এবং তারপর ভালোবাসা তোমাদেরকে পূত অগ্নিতে উৎসর্গ করবে আর তোমরা পরমেশ্বরের পবিত্র ভোজনের রুটী হ’য়ে উঠবে।

    ভালোবাসা তোমাদের সাথে এইমত আচরণ করবে আর তেমরা তোমাদের গভীরগোপন হৃদয়রহস্য বিদিত হ’য়ে উঠবে
    আর সেই অভিজ্ঞানে তোমরা জীবনহৃদয়ের আসঙ্গ সঙ্গী হ’য়ে উঠবে।

    কিন্তু ভয়ে শঙ্কায় কাপুরুষতায় যদি তোমরা ভালোবাসার সুখ ও শান্তির সন্ধানী হও
    তাহলে বরং তোমরা তোমাদের নিজেদেরকে নিরাবরণ নিরাবৃতিকে ঢেকে লও, ভালোবাসার পেষণাগার থেকে তোমরা মুক্ত হও
    তোমরা ঋতুহীণ নৈঋত পৃথিবীতে ফিরে যাও, সেখানে হাসতে পারবে তবু হাসবে না, কাঁদবে তবু অশ্রুনিপাত হবে না, সেই পৃথিবীতেই তোমরা ফিরে যাও, তোমরা মুক্ত হও।
    ভালোবাসা নিজেকে ছাড়া কিছু অর্পণ করে না, নিজের থেকে ছাড়া কিছুই গ্রহণ করে না
    ভালোবাসা অধিকার করে না, অধিকৃতও হয় না
    ভালোবাসা ভালোবাসাতেই সম্পূর্ণ, আর কিছুতেই সম্পূর্ণ হয় না।
    ভালোবাসলে কখনই তোমরা কেউ বোলো না ”আমার হৃদয়ের অধীশ্বর ঈশ্বর”, বরং বোলো ”অধীশ্বর ঈশ্বরের হৃদয়ে আমি অধীস্থ”
    এবং কখনই ভেবো না তোমরাই ভালোবাসার পথনির্দ্দেশ, ভালোবাসার যোগ্য হ’লে ভালোবাসাই হবে হবে তোমাদের পথনির্দ্দেশ, তোমরাই হবে ভালোবাসাতে অধীস্থ।

    নিজেকে চরিতার্থ করা ছাড়া ভালোবাসার আর কোন কামনা নাই
    কিন্তু ভালোবাসলে তোমরা ভালোবাসার কামনানিষিক্ত হও, তোমাদের কামনা ভালোবাসানিষিক্ত হউক্ তাই:
    দ্রবণে দ্রবীভূত বহমান স্রোতোধারায় যেমন রাত্রিনিশীথে কলতান মন্ত্রণা
    আত্মজ চেতনায় ভালোবাসা মরমী হৃদয়ের আকুতি যন্ত্রণা
    এবং সানন্দে আত্মবিদীর্ণ রক্তাক্ততায় ভালোবাসার অভিবাসন।
    সুপ্রভাতের পক্ষবিহারী ডানায় হৃদয়ের উন্মেষে অনুবর্তী দিবসরাত্রির কৃতজ্ঞতাজ্ঞাপন, ভালোবাসায় অভিবাসন
    দ্বিপ্রাহরিক বিশ্রান্তে পরমানন্দে ভালোবাসার অনুধ্যান
    সায়াহ্ণলগ্নে নিজবাসে আবার নীড়ে ফিরে এসে দিবসান্তের আনন্দধ্যান
    এবং তারপর তোমার প্রার্থিত প্রেমাষ্পদের প্রতি আপন ওষ্ঠাধরে নিঃসৃত প্রার্থনা সঙ্কীর্তণে নিদ্রাধ্যান।

    http://prophet-bn.blogspot.com/2011/07/blog-post_2095.html

  5. থার্ড আই লিখেছেনঃ

    আসসালামু আলাইকুম।

    এই শব্দনীড়ে যেখানে কেবল আবিজাবি কবিতা পোষ্ট আসে সেখানে আমার মতো চছাছোলা লোকও আপনার পোষ্টের প্রসংশা না করে পারছি না। গ্রেট জব।

    অনুবাদগুলি কি বাজে হয়!! তাই না।

    আল্লাহ হাফিজ।

  6. মিতা লিখেছেনঃ

    ধন্যবাদ। মাঝে মাঝে এলেবেলে ভাবনা গুলো লিখে ফেলি কোন কিছু না ভেবেই ।

  7. মিতা লিখেছেনঃ

    https://www.shobdonir.com/wp-content/plugins/wp-monalisa/icons/wpml_flowers.gif

  8. মিতা লিখেছেনঃ

    উন্নত দেশে ওরা সবাই নিজের প্রাইভেসীকে যেমন গুরুত্ব দেয় অন্যের বেলায়ও এর ব্যতিক্রম নেই।

  9. মিতা লিখেছেনঃ

    কাহলিল জিবরান এর কবিতার জন্য ধন্যবাদ ।উনার লেখা যে কবিতা আমি ওঁকে বলতে চেয়েছি সেটি …
    On Children
    Kahlil Gibran

    Your children are not your children.
    They are the sons and daughters of Life’s longing for itself.
    They come through you but not from you,
    And though they are with you yet they belong not to you.

    You may give them your love but not your thoughts,
    For they have their own thoughts.
    You may house their bodies but not their souls,
    For their souls dwell in the house of tomorrow,
    which you cannot visit, not even in your dreams.
    You may strive to be like them,
    but seek not to make them like you.
    For life goes not backward nor tarries with yesterday.

    You are the bows from which your children
    as living arrows are sent forth.
    The archer sees the mark upon the path of the infinite,
    and He bends you with His might
    that His arrows may go swift and far.
    Let your bending in the archer’s hand be for gladness;
    For even as He loves the arrow that flies,
    so He loves also the bow that is stable.

    এর বাংলা কোথায় যেন পড়েছিলাম । মজার ব্যাপার কাহলিল জিবরানের আসল নামটা হচ্ছে খলিল জিবরান …

    এখানে কাহলিল জিবরান সম্পর্কে …

মন্তব্য করুন

মন্তব্য করার জন্য লগ ইন করুন ।

ই-মেইলের মাধ্যমে নতুন পোষ্ট-এর জন্য

আপনার ই-মেইল লিখুন

,

অক্টোবর ১৯, ২০১৭,বৃহস্পতিবার

setubondhon